Categories
crime

নাম ভাড়িয়ে ৬ বছর গা ঢাকা! অবশেষে রায়গঞ্জ পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার দিনহাটায় দম্পতি খুনের আসামি ।

নাম বদল করে চারশো কিলোমিটার দূরে গা ঢাকা দিয়ে থাকার পর ছয় বছর পরে পুলিশের জালে ধরা পড়ল দিনহাটায় দম্পতি খুনের অভিযুক্ত পরিচারিকা মঞ্জু সাহা ওরফে পূর্ণিমা। বুধবার রায়গঞ্জ থানার পুলিশ চন্ডীতলা এলাকা থেকে মঞ্জু সাহা ওরফে পূর্ণিমা সাহা কে গ্রেপ্তার করার পাশাপাশি তার বোন সরস্বতী ঘোষ কেও গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতদের আদালতে তোলার পর দিনহাটা পুলিশের হাতে তুলে দেয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে দিনহাটায় সুবোধ চক্রবর্তী ও আরতী চক্রবর্তী নামে এক দম্পতির বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করতো মঞ্জু সাহা। ২০১৪ সালের এক রাতে ওই দম্পতিকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে খুনের চেষ্টা করে পরিচারিকা মঞ্জু। আরতী দেবীর মৃত্যু হলেও সে সময় হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে বেঁচে যান সুবোধ বাবু। এই ঘটনার পরই এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত পরিচারিকা মঞ্জু সাহা। সে সময় অনেক তদন্ত করেও পুলিশ এই খুনের কিনারা করতে পারেনি। সম্প্রতি দিনহাটা থানার পুলিশ জানতে পারে যে মঞ্জু সাহা রায়গঞ্জের চন্ডীতলা এলাকায় নাম ভাড়িয়ে তার বোন সরস্বতী ঘোষের বাড়িতে আছে। দিনহাটা পুলিশ এরপর দ্বারস্থ হয় রায়গঞ্জ পুলিশের কাছে। দিনহাটা পুলিশের কাছে থেকে যাবতীয় তথ্য পেয়ে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ হানা দেয় চন্ডীতলা এলাকায় সরস্বতী ঘোষের বাড়িতে এবং সেখান থেকেই অভিযুক্ত পরিচারিকা পূর্ণিমা সাহা ওরফে মঞ্জু সাহা এবং তার বোন সরস্বতী ঘোষ কে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত পরিচারিকা খুনের ঘটনা স্বীকার করার পাশাপাশি নাম ভাড়িয়ে এই এলাকায় থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে পুলিশ সূত্রে খবর। বুধবার অভিযুক্তদের আদালতে তোলার পর তাদের দিনহাটা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানান রায়গঞ্জ পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনুপম সিং।

140

Leave a Reply