২১/৬/২০২০,ওয়েবডেস্কঃকরোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েই চলেছে মালদা জেলাতে। একটা সময় মালদাকে রেড জোন ও ঘোষণা করা হয়েছিল। লকডাউন উঠে যাওয়ার পরেও মালদায় সংক্রমনের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এরই মধ্যে পাওয়া খবর অনুযায়ী গত শুক্রবার জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল বলে জানা গেছিল। তার পরেরদিন অর্থাৎ শনিবারই মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের রক্তেও মেলে করোনার উপস্থিতি। ইতিমধ্যেই দুই স্বাস্থ্য আধিকারিককেই হাসপাতালে ভর্তি করা হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে মালদা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রওনা হয়েছেন কলকাতার উদ্দেশ্যে। তাকে আমরি হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করানো হবে বলে জানা গেছে।

সাধারণ মানুষের
মধ্যে করোনার আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা ছিলই। কিন্তু জেলার উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের আক্রান্ত হয়ে যাওয়ায় উদ্বেগ ছড়িয়েছে সর্বত্র।

উল্লেখ্য আনলক শুরু হওয়ার পর থেকেই হাট-বাজারে,রাস্তাঘাটে অবাধে বেরোতে শুরু করেছেন মানুষ। একে অপরের সঙ্গে মেশামেশি আরম্ভ হয়েছে বিনা বাধায়। তার ফলে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা করেছিলেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ঊর্ধ্বমুখী। 4 লাখ ছাড়িয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। সারাদেশের সাথে রাজ্যের পরিস্থিতি ও ধীরে ধীরে উদ্বিগ্ন করে তুলছে মানুষকে। ক্রমশই বাড়ছে সংক্রমণ। তবে একইসঙ্গে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও বাড়ছে বলেই জানানো হয়েছিল শেষ প্রকাশিত স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে।

তবে জেলার উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের আক্রান্ত হওয়ার খবরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলা প্রশাসনের কর্মচারী মহল থেকে সাধারণ মানুষ সকলের মধ্যেই।

8