এদেশের বামপন্থীরা চিনের সাম্রাজ্যবাদী কার্যকলাপের তীব্র বিরোধী। লাদাখ সীমান্তে চিনের আগ্রাসনের তীব্র সমালোচনা করে বামপন্থীদের অবস্থান স্পষ্ট করলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান তথা সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্য কান্ত মিশ্র।

এদিন সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, “৬২ সালের যুদ্ধের সময় কমিউনিস্ট পার্টি চিনের বিরোধিতা করেছিল। জোট নিরপেক্ষতাকেই তখন সমর্থন করা হয়। এবারেও চিন যা করছে তা একেবারেই সঠিক নয়। তবে যুদ্ধ কোনও সমস্যার সমাধান করতে পারে না। দু’দেশের মধ্যে কুটনৈতিক আলোচনার মধ্য দিয়ে এই সমস্যার সমাধান করতে হবে।” সুর্যকান্ত মিশ্র মনে করিয়ে দেন, অরুণাচল নিয়ে চিনের যে দাবি ছিল সিপিআইএম তার চরম বিরোধিতা করেছিল। চিনের দাবি অন্যায্য ছিল। এই দাবি কখনই সমর্থনযোগ্য নয়।”শুধু এখানেই থামেননি সূর্য বাবু, তিনি বাম বিরোধীদের উদ্দেশ্যে পরিষ্কার করে জানিয়ে দেন আন্তর্জাতিক স্তরে সিপিআইএমের অবস্থানের কথা। তিনি বলেন, “সিপিআইএম কখনওই চিন বা রুশপন্থী ছিল না। আজও নেই। চিনের চেয়ারম্যান কোনওদিন সিপিআইএমের চেয়ারম্যান ছিল না। এটা ভুল পথ। আমরা চিরকালই জোট নিরপেক্ষ নীতি নিয়ে চলেছি।” রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, সিপিআইএমের এই অবস্থান আগামীদিনে রাজ্য তথা দেশের বাম সমর্থকদের ওপর ভাল প্রভাব ফেলবে। রাজ্য রাজনীতিতেও প্রাসঙ্গিকতা ফিরে পাবে সিপিআইএম

18