রক্তদান জীবনদান : এগিয়ে আসতে হবে সকলকেই

কৌশিক ভট্টাচার্য্য

বিশেষ প্রতিবেদন:

আজ ১৪ই জুন বিশ্ব রক্তদাতা দিবস।নিরাপদ রক্ত সরবরাহের মূল ভিত্তি হল স্বেচ্ছায় রক্তদান। যারা স্বেচ্ছায় রক্তদান করে অসংখ্য মানুষের প্রাণ বাঁচাচ্ছেন তাদেরকে রক্তদানে উৎসাহিত করার জন্য এই দিনটি বিশেষভাবে পালন করা হয়। ২০০৪ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য অধিবেশনের পর থেকে প্রতিবছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৪ই জুন বিশ্ব রক্তদাতা দিবস পালন করেন। ১৪ জুন দিবসটি পালনের আরও একটি তাৎপর্য রয়েছে। এদিন জন্ম হয়েছিল বিজ্ঞানী কার্ল ল্যান্ডস্টিনারের। এই নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী আবিষ্কার করেছিলেন রক্তের গ্রুপ ‘এ, বি, ও,এবি’।
সারা বিশ্বাসের সাথে সাথে ভারতবর্ষে ২০০৪ সাল থেকে ফেডারেশন অব ব্লাড ডোনার্স অরগানাইজেশন অফ ইন্ডিয়া (FBDOI) ও ন্যাশানাল ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিকালস (NIB,Noida) এর যৌথ উদ্যোগে RAKTDAAN INDIA নামক একমাস ব্যাপী কর্মসূচি পালন করা হয়। এ বছরের বিশ্ব রক্তদাতা দিবসের মূল বিষয় বস্তু হল “Safe blood, Saves lives”
রক্তদান আন্দোলনে আমাদের উত্তর দিনাজপুর জেলা অনেকটাই এগিয়ে আছে। এই জেলার দুটি সরকারী ব্লাড ব্যাঙ্ক হল রায়গঞ্জ ব্লাড ব্যাঙ্ক ও ইসলামপুর ব্লাড ব্যাঙ্ক। West Bengal Voluntary Blood Donors’ Forum এর শ্রী অপূর্ব ঘোষ মহাশয়ের হাত ধরে এই জেলার রক্তদান আন্দোলনের অন্যতম প্রাণপুরুষ শ্রী সুব্রত সরকার মহাশয়ের নেতৃত্ব উত্তর দিনাজপুর জেলা শাখার সূচনা হয়। তারপর এই দশকে রায়গঞ্জ মুক্তির কান্ডারী , WBVBDF, FBDOI এর মাধ্যমে রক্তদান আন্দোলন ধারাবাহিকভাবে ভাবে চলছে।বর্তমানে জেলার হাজার হাজার যুব ভাই বোন, গৃহবধূ , শিক্ষক, ব্যবসায়ী, পুলিশ, প্রশাসন, রাজনৈতিক সংগঠন থেকে শুরু করে টোটো চালক,কৃষক সহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ একসাথে রক্তদানে এগিয়ে এসেছে। জেলার অন্যতম শততম রক্তদাতা শ্রী সন্তোষ বেঙ্গানী মহাশয়ের উদ্যোগে প্রতিমাসে রক্তদান শিবিরের মধ্যে দিয়ে ব্লাড ব্যাংক রক্তপূর্ন রাখতে এগিয়ে এসেছেন। ১৮ থেকে ৬৫ বছরের সকল সুস্থ পুরুষ ও মহিলা বছরে তিন থেকে চারবার রক্তদান করতে পারে। জেলার ১৫০জনের বেশী থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু, গর্ভবতী মহিলা ,ডায়ালিসিস রোগী সহ বিভিন্ন দুর্ঘটনা কবলিত মানুষের জীবন বাঁচাতে প্রায়১৪০০০ ইউনিট রক্তের প্রয়োজন হয়। যার বেশিরভাগই বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগ আয়োজিত রক্তদান শিবির থেকে পাওয়া যায়। আগামী দিনে এভাবেই সকলে একসাথে এগিয়ে এসে উত্তর দিনাজপুর জেলাকে ১০০শতাংশ স্বেচ্ছা রক্তদাতা পূর্ণ মডেল জেলা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

514