স্কুল না খোলার দাবীতে কেন্দ্র সরকারের কাছে আবেদন লক্ষ অভিভাবকের।

৩রা জুন,২০২০:শিক্ষা নয় স্বাস্থ্যই আগে। ভারতের মত করোনা সংক্রমিত একটি দেশে স্বাস্থ্য সুরক্ষাকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। করোনা পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসার আগে স্কুল না খোলার পক্ষেই মত দিচ্ছেন দেশের অভিভাবকদের একটি বড় অংশ। তারা এই মর্মে কেন্দ্রের কাছে একটা পিটিশনও জমা দিয়েছেন। পিটিশনে বলা হয়েছে, “যতদিন পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে না আসছে বা করোনার টিকা আবিষ্কার না হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত যেন স্কুল খোলা না হয়।” এই অনলাইন পিটিশনটিতে সই করেছেন দেশের প্রায় ২ লক্ষ ১৩ হাজার অভিভাবক। তাঁদের মতে চলতি শিক্ষাবর্ষটি অনলাইন শিক্ষার মধ্যেই শেষ করা হোক।
উল্লেখ্য গত ১৬ মার্চ থেকে সারাদেশে বন্ধ স্কুল-কলেজ । রাজ্যে ৩০শে জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে স্কুল কলেজ। তবে মনে করা হচ্ছে আনলক ২ শুরু হলে জুলাই থেকেই খুলে যাবে দেশের বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তাই সন্তানদের সুরক্ষায় উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছেন দেশের অভিভাবকরা।

অনলাইন পিটিশনটিতে তাঁরা বলেছেন, ‘জুলাই মাসে স্কুল খোলাটা সরকারের সবচেয়ে খারাপ সিদ্ধান্ত হবে। এটা অনেকটা আগুন নিয়ে খেলার মতো। বর্তমান শিক্ষাবর্ষটি ই-লার্নিংয়ের মাধ্যমেই চালু রাখা উচিত্‍।’ কেন্দ্রকে জমা দেওয়া ওই আরজি পত্রে অভিভাবকদের পক্ষ থেকে প্রশ্ন তোলা হয়েছে যে,’স্কুলগুলিই যখন দাবি করছে যে, ভার্চুয়াল শিক্ষায় তাদের কোনও সমস্যা নেই। তাহলে চলতি শিক্ষাবর্ষটি অনলাইনেই শেষ করা হবে না কেন?’

তবে এক্ষেত্রে সমস্যা একটিই ভার্চুয়াল লার্নিংয়ের সুবিধা দেশের সব শিক্ষার্থীর জন্য ফলপ্রসূ হবেনা। কারন সেই পরিকাঠামো তাদের কাছে অধরা। অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের শিক্ষার্থীদের কাছে অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা পৌঁছে দেয়া সত্যিই কি সম্ভব? প্রশ্ন থাকছে। সবাই অপেক্ষা করে আছেন সরকারি সিদ্ধান্তের।

185