ওয়েব ডেস্ক, জুন১,২০২০: উত্তরাখণ্ডের শিল্পনগরী কাশীপুরে ঘটেছে ঘটনাটি। বিয়ের পরেও বাপের বাড়িতেই বসবাস করছিলেন এক যুবকের স্ত্রী। স্ত্রীর বান্ধবীর সূত্রের তিনি জানতে পারেন যে স্ত্রী কলগার্লের পেশায় নিযুক্ত। যুবকটি আরও জানতে পারেন যে তার স্ত্রী শ্যামাপুরমে বসবাসকারী এক মহিলার মাধ্যমে কাজ করে। বান্ধবীই তাকে দালালের নাম্বার দিয়েছিল। যুবকটি দালালের কাছে গেলে তিনি যুবককে কলগার্লের ফটো হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়েছিলেন যুবকের স্ত্রীর ছবি সহ। যুবক তার স্ত্রীর ছবি পছন্দ করে চুক্তিটি পাকা করেন।

মেয়েটি নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে যায়, কিন্তু সেখানে একজন গ্রাহক হিসাবে তার স্বামীকে  দেখে তার পায়ের নিচের মাটি সরে যায়। তুমুল ঝগড়া ঝাটি ও হাতাহাতির পরে বিষয়টি পুলিশে পৌঁছেছে। স্বামী এসপি রাজেশ ভট্ট’কে তার যন্ত্রণার কথা জানিয়েছেন। আর স্ত্রী স্বামীর সাথে তার বান্ধবীর সম্পর্কের অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

17