৩১/৫/২০২০,ওয়েবডেস্কঃভাড়া বৃদ্ধি না হলে রাস্তায় বেসরকারি বাস চলবে না বলে সরকারকে সাফ জানিয়ে দিল বাস মালিকদের চারটি সংগঠন। এর আগেও বাস মালিকরা জানিয়েছিল কম সংখ্যক যাত্রী নেওয়ায় তাদের লোকসানের মুখে পড়তে হবে। সেজন্য যাত্রী মাথাপিছু ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব দিয়েছিল তারা। সরকার প্রথমে সে প্রস্তাবে রাজিও হয়। প্রত্যেক যাত্রীপিছু কুড়ি টাকা করে ভাড়া ধার্য করা হয়েছিল। সরকারের এমন সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরেই অবশ্য চারপাশ থেকে প্রতিবাদ ওঠে এবং সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে। তারপরে রাজ্য সরকার সরকারি বাস পরিষেবা চালুর কথা ঘোষণা করে দেয়। কিন্তু বেসরকারি বাস মালিকরা তাদের দাবিতে অনড় থাকে। তাদের একমাত্র দাবী হয়ে দাঁড়ায় মাথাপিছু যাত্রী ভাড়া বৃদ্ধি না হলে তারা রাস্তায় বাস চালাবে না। কারণ এতে তাদের লোকসানের সম্মুখীন হতে হবে ।এদিকে মাথাপিছু ভাড়া বৃদ্ধি হলে যাত্রীদের পক্ষে তা কতটা সহনীয় হবে প্রশ্ন চিহ্ন থাকছে তা নিয়েও।কারণ মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী বাসের প্রতিটি সিটে প্যাসেঞ্জার নিতে পারবে বাস মালিকরা। শুধু দাঁড়িয়ে থাকা প্যাসেঞ্জারদের নিতে পারবে না। অর্থাৎ বাদুড়ঝোলা হয়ে যাওয়ার ছবি আপাতত রাস্তায় দেখা যাবে না ঠিকই কিন্তু সিট পিছু যাত্রীভাড়া তারা পাবে। আগামী পয়লা জুন থেকে রাজ্যের ঘোষণা অনুযায়ী খুলে যাচ্ছে সরকারি-বেসরকারি সমস্ত অফিস-আদালত কল-কারখানা।বাড়বে রাস্তায় ভিড়।বেসরকারি বাস না চললে কি করে মানুষ যাতায়াত করবেন সেই নিয়ে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে মানুষের কপালে। সেই কারণেই সরকার পক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বাস মালিকদের সংগঠন। কিন্তু সেই সমাধানসূত্র না মেলায় বাস মালিকরা জানিয়ে দিল তারা রাস্তায় বের করবে না ভাড়া বৃদ্ধি না হলে।

10