মন্দিরে শুয়োরের মাংস রাখতে গিয়ে গ্রেপ্তার এক ব্যক্তি।

মন্দিরে শুয়োরের মাংস রাখতে গিয়ে গ্রেফতার হলেন এক ব্যক্তি।৪৮ বছরের ওই ব্যক্তি গ্রেপ্তার হওয়ার পর নিজেকে মানসিক ভারসাম্যহীন বলে দেখানোর চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। কোয়েম্বাটুর পুলিশের বক্তব্য অনুযায়ী অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম এস হরি প্রকাশ। সে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্র এবং দীর্ঘদিন ধরে বেকার।কিন্তু তার মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ার কোন মেডিক্যাল রেকর্ড পুলিশ পায়নি বলেই জানা গেছে। পুলিশ এর বক্তব্য অনুযায়ী, “গোপালাকৃষ্ণ স্বামী এবং স্ত্রী রাঘবেন্দ্র মন্দিরের সামনে মাংস রাখতে গিয়ে ধরা পড়ে ওই ব্যক্তি।” পুলিশ জানিয়েছে, “সিসিটিভি ফুটেজ দেখেই গ্রেপ্তার করা হয় ওই ব্যক্তিকে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় ওই ব্যক্তি মন্দিরের সামনে বাইক থামিয়ে ভেতরে যায় এবং বাইরে আসে।তার পরেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর পুলিশ ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইপিসি ১৫৩ (সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা), ২৯৫এ ( উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে দাঙ্গা লাগানোর অভিপ্রায়ে তাদের অপমানজনক কথা বলা) ৩৯৮( ধর্ম বিশ্বাসে আঘাত করার) ধারায় মামলা দায়ের করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

149