ভূমিকা : বাংলা ছোটগল্পে মুসলিম জনজীবন

পুরুষোত্তম সিংহ

বাংলা ছোটোগল্পে মুসলিম জনজীবন। হিন্দু মুসলিম নয় গল্প উপন্যাসে বলা হয় মানুষের কথা। অন্তত আমার তেমনই বিশ্বাস। লেখার ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা যেহেতু বড় কথা তাই নিজের সমাজকেই অনেকে বেছে নেন। আফসার আমেদের মনে হয়েছিল- নিজের সমাজ পিছিয়ে আছে তাই সে সমাজের কথা বলতে হবে, লিখতে হবে। ২০১৬ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত তিন বছর ধরে একটু একটু করে বাংলা ছোটোগল্পে মুসলিম জনজীবনের কথা লিখেছি। আধুনিক যুগের কথাকারদের ধরেছি। আগের কথা তো লেখা হয়েছে। ২০১৬ সালে লিখেছিলাম সৈয়দ মুস্তাফা সিরাজ নিয়ে এক সম্পাদকের নির্দেশে। তিনি সে লেখা নিয়েও ছাপেনি, ফেরতও দেয়নি। তখন হাতে লিখতাম, যেহেতু সম্পাদক লিখতে বলেছিল তাই জেরক্স রাখিনি। অচিন্ত্যকুমার সেনগুপ্ত আমার প্রিয় গল্পকার। এক অধ্যাপিকার এক গবেষণালব্ধ বই পড়েছিলাম, সে গ্রন্থের ভূমিকা লিখেছেন অন্য এক পণ্ডিত অধ্যাপক। অথচ অচিন্ত্যকুমার সেনগুপ্ত নেই। কিন্তু বাংলা গল্পে বাঙালি মুসলিম প্রথম অচিন্ত্যকুমারের গল্পেই প্রবল ভাবে এসেছিল। মুসলিম জীবন নিয়ে লিখতে গিয়ে কেন জানি না আবদুল জব্বারের কথা সবাই ভুলে যায়। তার কারণ আমার জানা নেই। একসময় আবদুল জব্বার নিয়ে লিখলাম। এরপর একে একে লিখেছি -আবুল বাশার, আফসার আমেদ, অমর মিত্র, আনসারউদ্দিন, আয়েশা খাতুন, ইলিয়াস, সৈয়দ মুজতবা আলী, ওয়ালীউল্লাহ, শওকত আলী,হাসান আজিজুল হক, সেলিনা হোসেন, নীহারুল ইসলাম, সোহারাব হোসেন, সাদিক হোসেন, শামিম আহমেদ, হামিরউদ্দিন মিদ্যা নিয়ে। প্রায় নব্বই হাজার শব্দ। কিছু লেখা দৈনিক পত্রে, লিট্‌ল ম্যাগাজিনে, ই-ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়েছে। এবার সব সাজিয়ে একত্রিত করেছি। ইচ্ছা হলে পড়তে পারেন কুলিক ইনফোলাইনে আগামী ৩১ শে মে থেকে।

452