লকডাউন: নব বধূকে স্কুটিতে চাপিয়ে বাড়ি নিয়ে এল শিক্ষক পাত্র।

মাস ছয়েক আগে দুই পরিবারের সম্মতিতে রেজিষ্ট্রি ম্যারেজ হয়ে গিয়েছিল।সামাজিকভাবে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয়েছিল মে মাসের ৮তারিখ। কিন্তু দীর্ঘ লকডাউনের জেরে চার হাত এক হবে কিনা সংশয় দেখা দিয়েছিল পূর্ব মেদিনীপুর রেড জোন হওয়া সত্বেও ভালবাসার কাছে তা হার মানতে বাধ্য হল,প্রশাসনের মৌখিক ছাড়পত্রের পরে মাত্র ১১জনকে নিয়ে চার হাত এক হওয়ার অনুষ্ঠান সম্পন্ন হল।
রামনগর থানার অন্তর্গত কুলবুধি গ্রামের পাত্রী রিয়া বারিক,পেশায় প্রাথমিক শিক্ষক পাত্র ননীগোপাল প্রামাণিক নববধূকে নিয়ে স্কুটি চালিয়ে বাড়ি চলে আসেন। সমস্ত অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই।।নবদম্পতির ইচ্ছে অনুসারে বউভাতের অনুষ্ঠানে ভূরিভোজের আয়োজন না করে ৫০টিরও বেশি পরিবারকে ত্রাণ বিলি করেছেন।এই সামজিক দূরাবস্থার মধ্যে আর্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানোকে নবদম্পতিরা মহৎ কাজ মনে করেন।

305