শুরু হলো বিমানের টিকিট বিক্রি, জেনে নিন কী কী নিয়ম চালু করল কেন্দ্র

২১/৫/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

সারাদেশে ৩১ মে পর্যন্ত চলছে চতুর্থ দফার লকডাউন । এরই মাঝে ঘরোয়া বিমান চালুর নির্দেশ দিল কেন্দ্র। কোরোনার প্রকোপে দেশজুড়ে বন্ধ রয়েছে আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া সমস্ত বিমান পরিসেবা। প্রায় দু’মাস পরে ২৫ মে দেশে শুরু হতে চলেছে বিমান পরিষেবা। তবে আপাতত চলবে শুধু ঘরোয়া বিমান। বুধবার টুইট করে এমনটাই জানিয়েছেন অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী। ধাপে ধাপে বিমান পরিষেবা চালু হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিমান পরিসেবা শুরুর লক্ষে বৃহস্পতিবার থেকেই টিকিট বিক্রি শুরু করেছে বিমান সংস্থা গুলি। যাত্রীদের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখার জন্য আগে কেন্দ্র বলেছিল বিমানের মাঝের আসনের টিকিট বিক্রি করা যাবে না। ওই আসন ফাঁকা রাখতে হবে। কিন্তু বিমানসংস্থগুলি তাতে আপত্তি জানায়। তাদের বক্তব্য ছিল, দীর্ঘ লকডাউনের জেরে এমনিতেই সব সংস্থা আর্থিক ক্ষতির মুখে। এর পরে মাঝের আসন‌ খালি রাখলে কম যাত্রী নিয়ে বিমান চালাতে হবে। আর তাতে লোকসানের বোঝা বাড়বে। আর সেই লোকসান কমাতে গেলে টিকিটের দাম অনেকটা বাড়াতে হবে। অবশেষে সেই দাবি মেনে নিল কেন্দ্র। সরকারের পক্ষে জানানো হয়েছে, মাঝের আসনেও যাত্রী নেওয়া যাবে তবে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে যাত্রী ও বিমান সংস্থাগুলিকে।

বিমান ছাড়ার নির্দিষ্ট সময়ের কমপক্ষে দু’ঘণ্টা আগে বিমানবন্দরে পৌঁছতে হবে।
বিমান ছাড়ার চার ঘণ্টার আগে টার্মিনালে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।
প্রত্যেক যাত্রীকেই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। গোটা সফরেই মাস্ক পরে থাকতে হবে।
প্রত্যের যাত্রীকে স্ক্রিনিং করা হবে।
সকলের মোবাইল ফোনে ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপ থাকা বাধ্যতামূলক। যাত্রীর বয়স ১৪ বছরের নীচে হলে এক্ষেত্রে ছাড় মিলবে।
কোনও রকম করোনা সংক্রমণের উপসর্গ দেখা গেলে বিমানবন্দর চত্বরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

খুব জরুরি কারণ ছাড়া বিমানবন্দরে ট্রলি ব্যবহার করা যাবে না। একান্তই ব্যবহার করতে হলে সঙ্গে সঙ্গে তা স্যানিটাইজ করতে হবে।
বিমানের ভিতরে কোনও রকম খাবার পরিবেশন করা যাবে না।
বিমানের ক্রু থেকে যাত্রীদের বিমানবন্দরে যাওয়া আসার জন্য সরকারি গাড়ি ও ট্যাক্সির ব্যবস্থা করতে হবে রাজ্য সরকারগুলিকে।

152