আগামীকাল থেকে কোন কোন অঞ্চলে কিভাবে লকডাউন শিথিল করা হবে তার একটি বিস্তৃত নির্দেশিকা আজ প্রকাশ করতে চলেছে কেন্দ্র। সম্ভাব্য এই গাইড লাইনে মূল যে নির্দেশ থাকতে চলেছে সেগুলি হল-

১. গ্রীন ও অরেঞ্জ জোনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শপিং মল, সিনেমা হল ও থিয়েটার , জিম ছাড়া প্রায় সব কিছুই খুলতে চলেছে। তবে কতক্ষণ কি খোলা রাখা যাবে সম্ভবত তার সময় নির্দিষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে।

২. কনটেইনমেন্ট জোন ছাড়া পাব্লিক ট্রান্সপোর্ট আগামীকাল থেকে চালু হতে চলেছে।তবে যাত্রীর সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে।

৩. পরিযায়ী শ্রমিক ও আটকে থাকা মানুষদের জন্য স্পেশাল ট্রেন সার্ভিস চালু থাকলেও আপাতত সাধারণ প্যাসেঞ্জার ট্রেইন সার্ভিস বন্ধই থাকছে। ট্যাক্সি, অটো ইত্যাদি সর্বোচ্চ দুজন যাত্রী নিয়ে চলা ফেরা করতে পারবে।

৪. রাজ্য সরকারের আপত্তি না থাকলে ডোমেস্টিক ফ্লাইট সার্ভিস চালু হয়ে যাচ্ছে।

৫. কনটেইনমেন্ট জোন গুলি ছাড়া অন্য অঞ্চলে সেলুন, পার্লার গুলি খুলে যাবে ১৮ তারিখ থেকেই।

৬. সব ধরনের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান লকডাউন ৪ – এও বন্ধ রাখার নির্দেশ থাকছে।

৭. এক তৃতীয়াংশ বা অর্ধেক শ্রমিক নিয়ে উৎপাদন শিল্প চালু রাখা হচ্ছে।

চতুর্থ লকডাউন আরো দুই সপ্তাহ অর্থাৎ ৩১শে মে পর্যন্ত জারি হওয়ার সম্ভাবনা।