১২/০৩/২০২০: পূর্ণ হতে চলেছে প্রাথমিক শিক্ষক শিক্ষিকাদের দীর্ঘদিনের দাবি।দীর্ঘদিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিজের জেলার স্কুলগুলিতে পড়ানোর দাবি জানিয়ে আবেদন করছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। সরস্বতী পুজোর আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথমবার তাদের এই দাবি মেনে নেয়ার কথা ঘোষণা করে জানান যে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকরা এরপর থেকে নিজেদের জেলাতেই দিনগুলোতেই পড়াতে পারবেন। তারপর গতকাল বিধানসভায় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী সূত্র ধরেই শিক্ষক-শিক্ষিকাদের এই দাবী মেনে নেয়ার কথা ঘোষণা করেন। তিনি জানান এপ্রিল মাস থেকে ধীরে ধীরে প্রতিটি জেলার প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক শিক্ষিকাদের তাদের নিজের জেলার স্কুলগুলিতে কাজ করার সুযোগ দেয়া হবে। এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি ট্যুইটে বলেছিলেন,”আমাদের আমাদের শিক্ষক ও ছাত্রদের নিয়ে আমরা গর্বিত। শিক্ষকরাই প্রকৃত অভিভাবক। আগামীদিনের প্রকৃত নেতা হিসেবে গড়ে ধরে আমাদের সমাজ ও দেশ গঠনে শিক্ষকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। আমরা একটি নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের ফলে তারা শান্তিতে নিজের পরিবার ও কাজে মন দিতে পারবেন। তাদের সবার জন্য আমার শুভেচ্ছা রইল। শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় গতকাল বিধানসভায় জানিয়েছেন, “আগামী এপ্রিল মাস থেকেই ধাপে ধাপে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করবে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর।” রাজ্যের বেশিরভাগ স্কুলেই বদলি ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। এবার থেকে এ ব্যবস্থা চালু হবে বলে মনে করছেন প্রাথমিক শিক্ষক শিক্ষিকাদের একটি বড় অংশ।

22