ওয়েবডেস্ক, ফেব্রুয়ারি ১৫,২০২০: বাজেট আলোচনার প্রশ্নোত্তর পর্বে বেতন কমিশন ও মহার্ঘভাতা প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী আজ মুখ্যমন্ত্রী বললেন, “বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করেছি। বাকিটা সুপারিশেই বলা রয়েছে৷ যতটুকু পারছি, দেওয়া হয়েছে৷ নেতিবাচক চিন্তা করবেন না, রাজ্যের কথা ভাবুন, ইতিবাচক চিন্তা করুন৷’ তাঁর সরকার কর্মচারীদের কত শতাংশ বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়েছে বিধানসভায় দাঁড়িয়ে আজ তা স্পষ্ট করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।
চলতি আর্থিক বছরে নতুন বেতন কাঠামো অনুযায়ী বেতন হাতে পেলেও পে স্লিপে ডিএ’র উল্লেখ না থাকায় সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে তৈরি হয় তীব্র অসন্তোষ। রাজ্য বাজেটে এনিয়ে পৃথক কোনও প্রস্তাব না পেয়ে হতাশা আরও বাড়ে কর্মীমহলের৷ একদিকে পে স্লিপ থেকে ডিএ শব্দটিই উধাও হয়ে যাওয়ায় বকেয়া নিয়ে স্যাটে মামলার রায় ঘোষণার পরও তা কার্যকর না হওয়ায় ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা দায়ের হয়েছে৷পাল্টা রায় পুনর্বিবেচনা মামলাও চলছে স্যাটে৷ সেই জোড়া মামলার শুনানি ছিল গতকাল ৷ স্বাভাবিকভাবেই মহার্ঘ ভাতার ভবিষ্যৎ নিয়ে বেশ চিন্তিত রাজ্যের সরকারী কর্মচারী মহল৷
মহার্ঘ ভাতা না পেয়ে ক্ষোভে ফুঁসছে কর্মচারী মহল৷ তথ্য তুলে ধরে কনফেডারেশন অব স্টেট গভর্ণমেন্ট এমপ্লয়িজের সাধারণ সম্পাদক মলয় মখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘‘২০২০-২০২১ বাজেটে মহার্ঘভাতার কলমে … এই ঔদ্ধত্য ভেঙে চূড়মার করে দেওয়ার ক্ষমতা একমাত্র সরকারি তহবিল থেকে বেতন পাওয়া কর্মচারীদেরই আছে৷ বন্ধুরা আগামীদিনে এই আমাদের এই কথাটা মনে রাখতে হবে৷’’

27