২৭/১১/১৯,ওয়েবডেস্কঃ

বিদেশি সাংবাদিকেরা আর খুব সহজেই আসামের এনআরসি নিয়ে খবর করতে পারবেনা। নাগরিকপঞ্জির পর থেকে যে সমস্ত বিদেশি সাংবাদিকরা অসম নিয়ে খবর করার চেষ্টা করছেন তারা এত সহজেই তা করতে পারবেন না। ওই রাজ্যে ঢুকতেই বাধা দেওয়া হবে তাদের, একটি RTI-এর জবাবে সরকারের এমনই উত্তর প্রকাশ পেয়েছে সম্প্রতি। অসমের ১৯ লক্ষেরও বেশি মানুষ এনআরসির তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন। সারা দেশের পাশাপাশি আবার অসমে নতুন করে এনআরসি করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে সরকার। গুয়াহাটির বাসিন্দা প্রবীণ সাংবাদিক রাজীব ভট্টাচার্যের (Rajeev Bhattacharyya) দায়ের করা একটি আরটিআই-এর উত্তরে বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে যে, অসম সফরের ভিসার জন্য আবেদন করা সাত বিদেশি সাংবাদিকের আবেদন এখন সরকারের একটি ‘সংশ্লিষ্ট’ বিভাগ পরীক্ষা করে দেখছে। সাংবাদিকদের জাতীয়তা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে মন্ত্রক অবশ্য জানিয়েছে যে, এই বিষয়ে তথ্য ‘পাওয়া যায়নি’।

রাজীব ভট্টাচার্য বলেন, “কেন্দ্রে বিজেপি রয়েছে, সুতরাং আমি খুব একটা অবাক হইনি যে বিদেশি মিডিয়ার উপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কয়েক মাস এবং আরও কিছু নিষেধাজ্ঞার পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবে তবে ফলাফল অন্যান্য

কারণের উপরও নির্ভর করতে পারে।”

স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টিকে ভালোভাবে নেননি ওয়াকিবহাল মহল। বিষয়টিকে বাক স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ হিসেবেই দেখছেন তারা।

19