ওয়েবডেস্ক, অক্টোবর ২৮, ২০১৯ :

প্রসঙ্গত, সময় যত এগোচ্ছে মহারাষ্ট্রে বিজেপির ওপর ততই চাপ বাড়াচ্ছে শিবসেনা। সোমবার শিবসেনা মুখপাত্র তথা রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউথ জানান, বিজেপি কোনোভাবেই ফিফটি ফিফটি রফাসূত্র অস্বীকার করতে পারেনা। আমরা মুখ্যমন্ত্রীর পদের ক্ষেত্রে ফিফটি ফিফটি রফাসূত্র মেনে চলার জন্য লড়াই চালিয়ে যাবো।

এদিন শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউথ জানিয়েছেন, এটা আমাদের দাবি নয়। এটা আমাদের সঙ্গে বিজেপির চুক্তি। বিজেপির বিষয়টি বোঝা উচিৎ। জাতীয় নির্বাচনের আগে বিজেপির সঙ্গে আমাদের এই চুক্তি হয়েছিলো। বিজেপি মিডিয়ার সামনে যা বলেছিলো তার থেকে সরে আসলে হবেনা।

তিনি আরও বলেন – কাগজ ছিঁড়ে দেওয়া যেতে পারে, ফাইল সরিয়ে ফেলা যেতে পারে এমনকি ফাইল পুড়িয়ে দেবার জন্য মন্ত্রালয়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু ক্ষমতা ভাগের এই চুক্তি কীভাবে অস্বীকার করা যাবে?

এদিন সকালে শিবসেনা নেতা দিবাকর রাওতের নেতৃত্বে প্রথম রাজ্যপালের কাছে যান শিবসেনার এক প্রতিনিধিদল। এর কিছুক্ষণ পরেই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। যদিও দু’পক্ষেরই দাবি দীপাবলির শুভেচ্ছা জানাতেই তাঁরা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেছেন।ভাবেই ফিফটি ফিফটি রফাসূত্র অস্বীকার করতে পারেনা। আমরা মুখ্যমন্ত্রীর পদের ক্ষেত্রে ফিফটি ফিফটি রফাসূত্র মেনে চলার জন্য লড়াই চালিয়ে যাবো।

এদিন শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউথ জানিয়েছেন, এটা আমাদের দাবি নয়। এটা আমাদের সঙ্গে বিজেপির চুক্তি। বিজেপির বিষয়টি বোঝা উচিৎ। জাতীয় নির্বাচনের আগে বিজেপির সঙ্গে আমাদের এই চুক্তি হয়েছিলো। বিজেপি মিডিয়ার সামনে যা বলেছিলো তার থেকে সরে আসলে হবেনা।

তিনি আরও বলেন – কাগজ ছিঁড়ে দেওয়া যেতে পারে, ফাইল সরিয়ে ফেলা যেতে পারে এমনকি ফাইল পুড়িয়ে দেবার জন্য মন্ত্রালয়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু ক্ষমতা ভাগের এই চুক্তি কীভাবে অস্বীকার করা যাবে?

এদিন সকালে শিবসেনা নেতা দিবাকর রাওতের নেতৃত্বে প্রথম রাজ্যপালের কাছে যান শিবসেনার এক প্রতিনিধিদল। এর কিছুক্ষণ পরেই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। যদিও দু’পক্ষেরই দাবি দীপাবলির শুভেচ্ছা জানাতেই তাঁরা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেছেন।

15