২৬/১০/১৯,ওয়েবডেস্কঃ আসামের ফের ডিটেনশন ক্যাম্পে মৃত্যু।দুলাল পালের পরিবারের পথে হেটেই মৃত ফালু দাসের দেহ নিতে অস্বীকার করলো তার পরিবার।এর ফলে স্বভাবতই আবার চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে অসমে। বেজায় বিড়ম্বনায় অসম সরকার।

জানা যায়, বুধবার রাতে গোয়ালপাড়া ডিটেনশন ক্যাম্পে অসুস্থ হয়ে গুয়াহাটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় ফালু দাসের। তারপরেই ফালু দাসের দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করে সরকার। কিন্তু বিদেশী তকমাপ্রাপ্ত ফালু দাসের দেহ নিতে অস্বীকার করে পরিবার। পরিবারের মতে, উনি যখন বিদেশী তখন মৃতদেহ আমরা কেন নেব? সেই দেশেই পাঠানো হোক। পরিবারের অনড় মনোভাবের কারনে তিনদিন থেকে হাসপাতালের মর্গে রয়েছে ফালু দাসের মৃত দেহ।
জানা যায়, ২০১৭ সালের ৩১ জুলাই ৭০ বছরের অসমের নলবাড়ি জেলার বরক্ষেতি এলাকার চতেমারী গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ ফালু দাসকে বিদেশি ঘোষণা করে ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠায় ট্রাইব্যুনাল। প্রায় দুবছর ডিটেনশন ক্যাম্পে থাকার পর হঠাৎ ১১ অক্টোবর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানেই মৃত্যু হয় তার।

23