ওয়েবডেস্ক, অক্টোবর ৩, ২০১৯ : উত্তর দিনাজপুর জেলা করণদিঘী থানার আলতাপুর ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ডুমটোলা গ্রামে গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে মারা গেল এক নাবালিকা। জানা গেছে স্থানীয় আলতাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে পাঠরতা ঐ মৃত নাবালিকার বাবা ভিন রাজ্যে কাজকরেন। মৃত নাবালিকা

মেয়েটির মা শিলিগুড়ি হাসপাতালে অসুস্থ আত্মীয়কে দেখতে গিয়েছিলেন। পরিবারে লোকজন মেয়েটির মা ও ভিন রাজ্যে কাজ করা বাবা কে ফোন করে মেয়ের মৃত্যু কথা জানান। এরপরেই মেয়েটির মা ও বাবা দেরি না করে বাড়িতে ফিরে আসেন।
স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন দুর্গা পূজায় জামা কাপড় কেনা কাটা নিয়ে দুই বোন মধ্যে গন্ডগোল হয়। সকালেই বড় বোন রান্না করার জন্য বাড়ির বাইরে আসে দোকানে ডিম নিতে। ইতি মধ্যেই ছোট নাবালিকা মেয়েটি রিংকি দাস (১২)বড় বোন উপরে রাগ করে গলায় গামছা ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়। বড় বোন ছোট বোন গলায় ফাঁস দিয়েছে দেখে পাশের লোকজনকে খবর দেয়। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। পুলিশ মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

22