ওয়েবডেস্ক, সেপ্টেম্বর ১৩,২০১৯ :

সরকারি বাসের চাহিদা বেসরকারি বাসের থেকে সবসময়ই বেশি।
বেসরকারি বাসের তুলনায় শিলিগুড়ি-কলকাতা বাতানুকূল বাসের ভাড়াও যথেষ্ট কম। কিন্তু তার পরও ওইসব বাসের যথেষ্ট সংখ্যক যাত্রীর অভাব। এমনটাই দাবি উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগমের। তাই আসন ভরাতে এনবিএসটিসি কর্তৃপক্ষ বাস ভাড়ায় ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বিষয়ে সংস্থার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, মাঝেমধ্যে টিকিট প্রতি ৩০-৪০ শতাংশ হারেও ছাড় দেওয়া হবে।

কেনো এই পরিস্থিতির সম্মুখীন হলো এনবিএসটিসি? এই পরিস্থিতির কারণ হিসেবে কর্তৃপক্ষের সঠিক ব্যবস্থাপনাকে দায়ি করেছেন যাত্রীদের একাংশ। এ ব্যাপারে যাত্রীদের অভিযোগ, খুচরো পয়সার সমস্যা হলে কর্তৃপক্ষ বেশি টাকা নেয়, কিন্তু কখনও ১-২ টাকা কম নেয় না। শুধু তাই নয়, এও অভিযোগ করেন যে, বহরমপুর-ফারাক্কায় স্টপেজ রয়েছে। কিন্তু সেইসব স্টপেজের জন্য টিকিট কাটতে গেলে কলকাতা পর্যন্ত ভাড়া নেওয়া হয়। বাধ্য হয়ে অনেক যাত্রী বেসরকারি বাসে যাতায়াত করেন। এর পাশাপাশি বাসের অপরিচ্ছন্নতাকেও দায়ি করেছেন নিত্যযাত্রীরা। এমনকী অন লাইন চালু হলেও সেই ব্যবস্থায় অনেক সময় টিকিট কাটা যাচ্ছে না বলে অভিযোগ।

যদিও এনবিএসটিসি শিলিগুড়ির বিভাগীয় ম্যানেজার দীপঙ্কর দত্ত’র দাবি, বর্তমানে অফ সিজন চলছে । তাই যাত্রী তুলনায় কম হচ্ছে। যাত্রী হয়রানি অভিযোগ খতিয়ে দেখে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

20