Categories
প্রথম পাতা রাজ্য

“মমতাকে ক্ষমতায় আসতে সক্রিয়ভাবে সাহায্য করেছে আরএসএস”- মন্তব্য আরএসএস কর্তার

ওয়েবডেস্ক:২৮শে এপ্রিল ২০, ২০১৯:
সারা দেশে বিজেপি বিরোধী জোটের অন্যতম মুখ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।চ্যানেলগুলির টিআরপি বাড়াচ্ছে মোদী-মমতা দ্বৈরথ।প্রতিটি ভাষণে যখন মমতা বিজেপি-আরএসএসের নিন্দায় মুখর মমতা ঠিক তখনই এক আরএসএস কর্তার “মমতাকে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী করতে ঘাম ঝরিয়েছিল আরএসএস”- এই মন্তব্যে সরগরম হয়ে উঠলো রাজ্য রাজনীতি।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই কর্তা বলেছেন-” আসলে উনি জানেন বাংলায় ওঁর ক্ষমতায়নের

পিছনেও ছিল আরএসএস৷ মুসলিম ভোট ব্যঙ্ক ধরে রাখতে ওঁকে এখন এসব বলতে হয়৷২০১১ থেকে ২০১৯ এই বছরগুলিতে তৃণমূল সরকারের কাজ দেখলেই সহজে বোঝা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফেল করেছে তাই উনি আরএসএসের দিকে আঙুল তুলছেন৷ ২০১১ সালে বাংলার সাধারণ মানুষ পরিবর্তনের আশা করে মমতাকে ভোট দিয়েছিলেন৷ ৩৪ বছরের অপশাসন থেকে মুক্তি পেতে আমরাও সেই সময় ওনাকে সমর্থণ করেছিলাম৷ যে আশা করে মানুষ ওঁকে ভোট দিয়েছিল সেই বিশ্বাস উনি ভেঙেছেন৷ আরএসএস কোনও রাজনৈতিক সংগঠন নয়৷ আমরা কোনও দলের হয়ে প্রচার করিনা৷ আমরা সবাইকে ভোট দেওয়ার কথা বলেছি৷ ভোটাধিকার নিয়ে মানুষের সচেতনতা তৈরির কাজ করেছি শেষ কয়েকমাস ধরে৷’’
তৃণমূলের সাথে আরএসএস-বিজেপির ঘনিষ্ঠ যোগসূত্র আছে বলে বরাবরই দাবী করে আসছে সিপিআই(এম)।আরএসএস কর্তার এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন,‘আমরা বরাবরই এই কথা বলে আসছি।ক্ষমতায় আসতে আরএসএস বিজেপির সাহায্য নিয়েছিলেন মমতা৷ আজও ওরা স্বীকার করে নিল বিষয়টা৷ এর আগেও বিজেপির সঙ্গে সরকার গড়েছিল তৃণমূল৷ এখন ভোটের জন্য আরএসএস, বিজেপি বিরোধিতা করছে৷ ভোট মিটলেই আবার সব এক হয়ে যাবে৷ বিজেপিইতো তৃণমূলের জিয়নকাঠি৷ নাহলে সারদা মামলায় জেলে থাকতেন মমতা৷’’
লোকসভা ভোট চলাকালীন সময়ে এই রকম কথা সামনে আসায় মমতা বন্দোপাধ্যায় কি প্রতিক্রিয়া দেন এখন তারই অপেক্ষায় রাজনৈতিক মহল।

90

Leave a Reply