১৭/৩/১৯,ওয়েবডস্ক,মুতাহার কামালঃচোপড়া থানার মাঝিয়ালি গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেস কলোনীর রমাবতি চা বাগানে। ছেলের হাতে বাবা খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। মৃত ওই ব্যক্তির নাম ভাদু বরাইক(৪২)। বাড়ি চোপড়া এলাকার মাঝিয়ালি গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেস কলোনীর রমাবতী চা বাগান এলাকাতে। এই ঘটনায় গ্রামবাসীরা ছেলে সন্তোষ বরাইককে হাত পা বেঁধে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, চোপড়া থানার মাঝিয়ালি গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেস কলোনির রমাবতী চা বাগান এলাকার বাসিন্দা ভাদু বরাইক আজ সকালে বাজারে যাওয়া সময় রমাবতি চা বাগান এলাকায় বাবা ভাদু বরাইক পৌঁছালে ছেলে সন্তোষ বরাইক তার বাবাকে খেলার ব্যাট দিয়ে মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ভাদুবাবুর। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে। এই খবর জানাজানি হতেই ছেলেকে গ্রামবাসীরা ধরে ফেলে, মারধর করে ছেলের হাত পা বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চোপড়া থানার পুলিশ। পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। ছেলেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। কি কারনে বাবাকে খুন করলো তা তদন্ত শুরু করেছে চোপড়া থানার পুলিশ। ভাদু বরাইকের মেয়ে রুনি বরাইক জানিয়েছেন, বাবাকে ভাই ব্যাট দিয়ে মাথা আঘাত করে খুন করে। আমি দূর থেকে দেখলাম বাবাকে ভাই ব্যাট দিয়ে মাথায় আঘাত করে মারতে থাকে। কয়েকদিন আগে ভাই মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। চা বাগানের ম্যানেজার মৃন্ময় কুন্ডু জানিয়েছেন, আমি শুনতে পেলাম, আমাদের এক কর্মী তার বাবাকে খুন করেছে। আমাদের এখানে প্রায় দুই বছর ধরে কাজ করতো। তার বাবার চাকরিটাই ছেলে করছিল। তিনদিন ধরে এই ছেলেটা কাজে আসতো না। ছেলেটা যে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল তা আমাদের জানা ছিল না।

57