১০/৩/১৯,ওয়েবডেস্কঃগোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ শনিবার মাঝরাতে বিজেপির যুব নেতার বাড়ি থেকে উদ্ধার করলো আগ্নেয়াস্ত্র ও বোমা। শনিবার গভীররাতে বিজেপির যুব নেতার বাড়িতে তল্লাশির জন্য হানা দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশও। অভিযুক্ত বিজেপি নেতার নাম ভক্ত কুমার রায় বলে জানা গেছে। উদ্ধার হওয়া বোমাগুলি নিষ্ক্রিয় করার জন্য বোম্ব স্কোয়াডকে আনা হচ্ছে বলেও পুলিশ সূত্রে খবর।

বিশ্বস্ত সূত্রে খবর, রায়গঞ্জ পৌরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা বিজেপির যুব মোর্চা সভাপতি ভক্ত কুমার রায়। ওই নেতার বাড়িতে বে আইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও বোমা মজুত রয়েছে বলে খবর পায় পুলিশ। এরপর রাত প্রায় ২টা নাগাদ ভক্ত কুমার রায়ের বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ।বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্র। বোমাও মজুত রাখা ছিল বাড়ির উঠোনে বলে সূত্র মারফত জানা গেছে। পুলিশ রাতেই হেফাজতে নেয় বিজেপির এই নেতাকে।

যদিও এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে বিজেপি নেতারা লোকসভা ভোটের আগে পুলিশ মিথ্যে মামলায় তাঁদের নেতাকে ফাঁসিয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ জানান। পুলিশ নিজেই বোমা ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে এসেছিল বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা। সাথে সাথে ভক্ত কুমার রায়কে মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগে জেলাজুড়ে ব্যাপক আন্দোলনে নামারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, বে আইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও বোমা মজুত রাখার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ভক্ত কুমার রায়কে। পুলিশ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করছে।

লোকসভা ভোটের ডঙ্কা ইতিমধ্যেই বেজে উঠেছে জেলাজুড়ে। জেলার বামপন্থী প্রার্থী ইতিমধ্যেই প্রচারকাজ ও শুরু করে দিয়েছেন । সেই সময় এই ধাক্কা কি বিজেপি র সুনামের ওপর গাঢ় কালির আঁচড় টেনে দিলো? এই প্রশ্ন নিয়েই এখন সরগরম রায়গঞ্জ তথা জেলার ওয়াকিবহাল মহল।

22