২৪/২/২০১৯, কুলিক রোববার, কবিতা:

অক্ষের বাইরে

সন্দীপ কুমার ঝা

এজন্মে আর জলের সঙ্গে ‘পিরীতি’ হল না।
জমল না জলের সহবাস।ছলছল বইব,খেলব,জমে যাব,হল না।ধ্বসে গেল ইহকাল।অথচ আর একটু বেহায়া হলেই,স্বরলিপি সম্পূর্ণ হত।একটু মাত্র আর!
তাই না সুবর্ণা?

তোমার ঘরের বাইরে উঠোন।আমার উঠোনের এপারে আরো একটা ঘর।এই তো বৃত্তের পথ।এই চেনা অক্ষরেখার বাইরেই,পরে রইল ভাঙার গড়ার প্রকৃত ইতিহাস!

জীবনের আসল সুগন্ধি!উবে গিয়ে মাঠে মাঠে
বলার মত গল্প থাকল,জোনাকির হানাদারি টুকু।

চলো একদিন,দুজনে কোনো এক নদীর পাড়ে,অথবা শঙ্খপুর সমুদ্রে আবার জলখেলি।বালির বুকে,সারাদিন,কাটাকুটি।হারাই আমাদের চেনা অক্ষের ভারসাম্য।

বকেয়া লেনদেনে হারিয়ে কক্ষ‍্যচ‍্যুত হই।
নিঃস্ব হয়ে হাসি সম্রাটের হাসি।

তারপরেই ছোঁয়া হবে,প্রকৃত ফিরে আসার গান। নিজেদের কাছে।
যেভাবে পাখিরা ফেরে রোজ,ফকিরের বেশে।

এতটুকু বেইমান তো হতেই পারি।
তাই না সুবর্ণা?

60