3/1/2019, ওয়েবডেস্ক: শিক্ষকের কাজ শিক্ষার্থীদের শিক্ষা গ্রহনে সহায়তা করা।সেটাই করছিলেন শিলিগুড়ির শালবাড়ি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্যামল গোপ।একটি মাত্র নয় ছাত্ররা যাতে মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার আগে আরো বেশী করে অনুশীলন করতে পারে সেজন্য সরকারি টেস্ট পেপারের পাশাপাশি এবিটিএর টেস্ট পেপারও ছাত্রদের দিচ্ছিলেন।উল্লেখ্য, এবিটিএ বামপন্থী সমর্থিত শিক্ষক সংগঠন। কিন্তু রাজ্যে সরকার বদলের পর নতুন সরকার বিনা পয়সায় ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে সরকারি টেস্ট পেপার বিলি করা শুরু করে। শালবাড়ি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ছাত্রদের চাহিদামতো ছাত্রদের মধ্যে এবিটিএ-র টেস্ট পেপার দিচ্ছিলেন।শিক্ষার্থীদের এতে কোন আপত্তি ছিলো না।কিন্তু আপত্তি দেখা দিলো তৃণমূলের এক নেতার এবং স্কুলেরই এক সহকারি শিক্ষক মানিক রায়ের।ছাত্রদের অভিযোগ যে,শিক্ষক মানিক রায় প্রধান শিক্ষককে ‘চোর’ অপবাদ দিয়ে তার সম্পর্কে কুৎসা রটানোর চেষ্টা করেন।এরপরই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অন্যায় অভিযোগকারিদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পরে ছাত্রছাত্রীরা।এরমধ্যেই এক তৃণমূল নেতা দুদিনের মধ্যে প্রধান শিক্ষককে বদলি করে দেওয়ার হুমকি দিলে আগুনে ঘি পড়ে।ছাত্রদের ব্যাপক বিক্ষোভ আন্দোলন পুলিশ এসেও থামাতে পারেনি।শেষ পর্যন্ত সেই সহকারি শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের পা ধরে ক্ষমা চান এবং “আর এরকম করবো না” বলে মাইকে ঘোষনা করলে ছাত্ররা শান্ত হয়।

20