Categories
আশেপাশের খবর

গলায় বোতলের ছিপি। শিশুকে বাঁচাতে ডাক্তারদের ইচ্ছা শক্তির কাছে হার বেহাল পরিকাঠামোর

১/১২/১৮,ওয়েবেডেস্কঃ ইচ্ছা শক্তি যখন প্রবল হয় তখন কোনো বাধাই বাধা হয়ে দাড়ায় না। এমনি এক অদম্য ইচ্ছা শক্তির কাছে হার মানলো নিশ্চিত মৃত্যু। জয়ী হলো একটি ছোটো জীবন। সেই ছোট্টো শিশুটি ইসমাইল।শুক্রবার মা বাবার সঙ্গে শান্তিপুরের গোপালপুরে ঘুরতে আসে সে। আত্মীয়ের বাড়িতে বোতলের ছিপি বার বার মুখে দিচ্ছিল শিশুটি। অজান্তেই ছিপি গলার ভিতর ঢুকে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই প্রায় সংজ্ঞাহীন হয়ে যায় ইসমাইল। মা বাবা শিশুকে নিয়ে শান্তিপুর হাসপাতালের দ্বারস্থ হন। শান্তিপুর হাসপাতাল প্রথমে ইসমাইলকে ভর্তি নিতে রাজি হয়নি পরিকাঠামো না থাকার কারনে। শিশুকে বাঁচানোর ইচ্ছে পরিকাঠামোকে পিছনে ফেলে দিয়ে আশঙ্কাজনক শিশুটিকে দেখে ঝাঁপিয়ে পড়েন হাসপাতালের ডাক্তাররা।অপারেশন ছাড়াই শিশুর গলা থেকে ছিপি বার করে নজির গড়লেন শান্তিপুর হাসপাতালের ডাক্তাররা।

শুক্রবার টানা ১ ঘণ্টার চেষ্টায় শিশুর গলা থেকে ছিপি বার করতে সফল হলেন ডাক্তাররা। জলের বোতলের ছিপি আটকে ছিল শিশুর গলায়। অথচ, হাসপাতালে নেই কোনওরকম অপারেশনের পরিকাঠামো, নেই প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি। উপস্থিত বুদ্ধি প্রয়োগ ছাড়া চিকিৎসকদের কাছে কোনও উপায়ও ছিল না। সেই সময়ই হাল ধরলেন কয়েকজন ডাক্তার। শিশুর বুকে হাল্কা চাপ দিয়ে, তাকে এদিক-ওদিক করে, গলায় সরু নল ঢুকিয়ে ১ ঘণ্টার মধ্যে ছিপি বার করলেন। আপাতত চিকিৎসাধীন সেই শিশু। তার গলা অল্প চিরে গিয়েছে। একটু দেরি হলেই শিশুকে বাঁচানো যেত না বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

শিশুর গলা থেকে বিনা অপারেশনে ছিপি বের করতে পেরে আনন্দের ছাপ ডাক্তারদের চোখে-মুখে। তাঁরা পেরেছেন। ডাক্তারদের ইচ্ছের কাছে হার মেনেছে হাসপাতালের পরিকাঠামো।

তবে ডাক্তারদের আক্ষেপ, আর কতদিন পরিকাঠামো হীন হাসপাতালে এই ভাবে আশঙ্কাজনক রোগীদের চিকিৎসা করা যাবে!

306

Leave a Reply