১৫/১১/১৮,প্রতিবেদক- মুতাহার কামালঃভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের ‘ভোরের পাখি’ বিরসা মুন্ডা। ১৮৭৫ সালের ১৫ই নভেম্বর বিহারে, অধুনা ঝাড়খন্ডের রাঁচির উলিহাতু গ্রামে তাঁর জন্ম। আজ তাঁর ১৪৪ তম জন্মদিন।

এই ভেরের পাখিই আদিবাসীদের পথ পদর্শক হয়ে উঠেছিলেন সাথে একজন সমাজ সংস্কারক। তিনিই ব্রিটিশ শাসকদের অত্যাচার বিরুদ্ধে আদিবাসী মুন্ডাদের সংগঠিত করে মুন্ডা বিদ্রোহের সূচনা করেছিলেন। বিদ্রোহীদের কাছে তিনি ‘বীরসা ভগবান’ নামে পরিচিত ছিলেন। এই বীরের নেতৃত্বেই ১৮৯৯-১৯০০ সালে ‘মুন্ডা বিদ্রোহ’ সংগঠিত হয়েছিল। এই বিদ্রোহের মূল লক্ষ্য ছিল মুন্ডারাজ ও স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠা। এই বিদ্রোহকে মুন্ডারি ভাষায় ‘উলগুলান’ বলা হয়। যার অর্থ প্রবল বিক্ষোভ। মুন্ডা বিদ্রোহের পরেই বিরসা মুন্ডা সহ শতাধিক আদিবাসীকে গ্রেফতার করে ইংরেজ শাসক। বিচারে বীরসা মুন্ডা সহ আরো দুজনের ফাঁসির হুকুম হয়। ১২ জনের দ্বীপান্তর ও ৭৩ জনের দীর্ঘ কারাবাস হয়।যদিও চক্রান্ত করে ফাঁসির ঠিক আগের দিন ১৯০০ সালের ৯ ই জুন রাঁচি জেলের অভ্যন্তরে খাবারে বিষ প্রয়োগে তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ছিল মাত্র ২৫ বছর। দেশের এই বীর সন্তানের ১৪৪ তম জন্ম দিনে কুলিক পরিবারের পক্ষ থেকে জন্মদিনের শ্রদ্ধার্ঘ্য।

131