Categories
প্রথম পাতা

নাম বদল নিয়ে ফের উত্তাল রাজ্য তথা জাতীয় রাজনীতি !

ওয়েব ডেস্ক,১১/১১/২০১৮:সরকারের মর্জি মাফিকই সব হবে।সে রাজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে কোনো নতুন নিয়ম কানুনই হোক কি কোনো জায়গার নাম পরিবর্তন! আজ এমনটাই ঘোষণা করলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

ইতিমধ্যেই নাম পরিবর্তন প্রসঙ্গে বেশ কিছু মহল থেকে প্রশ্ন উঠে এসেছে উত্তরপ্রদেশ সরকারের দিকে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার এই কথা বলেন তিনি। যোগী বলেন, ” আমাদের যেটা ভালো মনে হয়েছে সেটা আমরা করেছি। আমরা মুঘলসরাই স্টেশনের নাম বদলে করেছি পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় জংশন। এলাহাবাদের নাম বদলে করেছি প্রয়াগরাজ। ফৈজাবাদের নাম বদলে অযোধ্যা করার প্রস্তাব হয়েছে। যেখানে প্রয়োজন মনে হবে, সেখানেই সরকার পদক্ষেপ নেবে।”

এদিকে এলাহাবাদ ও ফৈজাবাদের নাম বদলের ঘোষণার পর আরও কিছু জায়গার নাম পরিবর্তনের দাবি উঠেছে রাজ্য বিজেপিতে। শুক্রবার বিজেপি’র আগ্রার এক বিধায়ক জগন প্রসাদ গর্গ দাবি করেন, আগ্রার নাম বদলে অগ্রবান বা আগরওয়াল করা উচিত। সাধনা সঙ্গীত সোম নামে আরেকজন বিজেপি বিধায়কও দাবি করেন, মুজফরনগরের নাম বদলে লক্ষ্মীনগর করার জন্য।

তবে এই নাম পরিবর্তন কাণ্ডে বিজেপি নিজেদের জোট সঙ্গীর কাছেই বিরোধিতার সম্মুখীন হয়েছে। উত্তরপ্রদেশে বিজেপি’র জোট সঙ্গী সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টি’র প্রধান ও মন্ত্রী ওম প্রকাশ রাজভর বলেছেন, বিজেপি’র এই সব কর্মকাণ্ড সাধারণ মানুষের মন অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য। নাম পরিবর্তনেই যদি সব হয়ে যায়, তাহলে বিজেপি’র মুসলিম নেতাদের নামও তো পরিবর্তন করা উচিত।
রাজভর বলেন, ” বিজেপি মুঘলসরাই ও ফৈজাবাদের নাম পরিবর্তন করেছে। তাঁদের বক্তব্য এই নাম মুঘলদের দেওয়া। কিন্তু তাদের জাতীয় মুখপাত্র শাহনওয়াজ হুসেইন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি, উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী মোহসিন রাজা! তাহলে তাঁদের নামও বদল করা উচিত।” তিনি আরও বলেন, ” গরীব ও পিছিয়ে পড়া লোকেরা যখনই নিজেদের অধিকারের দাবিতে গলা তোলেন, তখন তাঁদের মন অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্যই এই সব কাজ করা হয়। মুসলিমরা আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে। জিটি রোড, লাল কেল্লা, তাজমহল। তাহলে এগুলোরও নাম বদল হোক।”

মহারাষ্ট্রে বিজেপি’র জোটসঙ্গী শিবসেনার তরফেও এই নাম বদলের বিরোধিতা করা হয়েছে। তাদের মুখপত্র ‘সামনা’তে দলের তরফে বলা হয়েছে, ” উত্তরপ্রদেশের মানুষকে নাম পরিবর্তনের ‘ললিপপ’ দেখিয়ে ভোট টানার লক্ষ্যে এ সব করছে বিজেপি। বিজেপি’র তরফে রামমন্দির বানানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ফৈজাবাদের নাম বদলে হচ্ছে অযোধ্যা ও একটা রামের মূর্তি বানানো হচ্ছে। এটাই তো ভোটের আগে মানুষকে বোকা বানিয়ে ভোট টানার কৌশল।” সব মিলিয়ে এই নাম বদলের কান্ডে সরগরম রাজ্য থেকে জাতীয় রাজনৈতিক মহল।

179

Leave a Reply