৫/১১/১৮, ওয়েবডেস্ক, মুতাহার কামাল:

রবিবার চোপড়ায় সংঘর্ষ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় দুপক্ষের মোট সাতজনকে গ্রেপ্তার করল চোপড়া থানার পুলিশ। ধৃতদের আজ ইসলামপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে। আদালতের কাছে ধৃতদের সাতদিনের পুলিশি হেফাজত চেয়ে আবেদন করেছে চোপড়া থানার পুলিশ।

গতকাল উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকে লক্ষীপুর গ্রামপঞ্চায়েতের কমলাগছ এলাকায় কংগ্রেস ও তৃনমূল কংগ্রেসের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছিল মহম্মদ সমির আলম নামে এক কংগ্রেস কর্মীর। আহত হয়েছিলেন আরও দুজন। এই ঘটনার পর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা চোপড়া ব্লক।

রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস কর্মীরা। এই ঘটনার তদন্তে নামে চোপড়া থানার পুলিশ। গতকাল রাতে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে দুপক্ষের মোট সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধৃতদের আজ ইসলামপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে।আজ ওই ঘটনায় মৃত সমির আলমের দেহকে লক্ষিপুরের কংগ্রেসের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।তারপর আজকে তার মৃত দেহকে মাটি দেওয়া হয়।

41