২৬/১০/১৮,ওয়েবডেস্ক: প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা ও তৃণমূল কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা তথা প্রতিষ্ঠাতা সদস্য পঙ্কজ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু নিয়ে চরম বিভ্রান্তি দেখা গেল শুক্রবার দুপুরে। প্রথমে খবর আসে বার্ধক্যজনিত কারণে দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন পঙ্কজ। কিন্তু তার পরেই শুরু হয় নাটক। বাড়িতে উপস্থিত তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীদের সামনেই দেখা যায় পঙ্কজ বন্দ্যোপাধ্যায়ের পালস্ বিট পাওয়া যাচ্ছে তড়িঘড়ি তাঁকে একটি গাড়িতে করেই নিয়ে যাওয়া হয় অন্য একটি বেসরকারি হাসপাতালে।
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারিভাবে শোকবার্তাও জানিয়ে দেন। বিধানসভায় স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় শোকবার্তার সঙ্গে সঙ্গে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের জন্য তৃণমূল নেতার বাড়িতে আসেন। তখনই ঘটে আজব ঘটনা। স্থানীয় ডাক্তার দীপক বোস লক্ষ্য করেন পঙ্কজবাবুর শরীরে হৃদস্পন্দন। তা মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসকে জানাতেই তড়িঘড়ি তিনি পঙ্কজবাবুকে নিয়ে যান ফর্টিস হাসপাতালে। তবে সেখানেও মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।
তিনি দীর্ঘদিন ধরেই ডায়াবেটিক ও কিডনিজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।

15