১০/১০/১৮,ওয়েবডেস্কঃ মাত্র তিন দিন আগেই বাজারে এসেছিলো আর এরই মধ্যে আ

কল্পনা করেনি প্রকাশনা সংস্থা। এতটা চাহিদা হবে ভাবতে পারেননি সিপিএমের অনেক নেতাই। কিন্তু তিন দিনের মধ্যেই নিঃশেষিত হয়ে গেল ন্যাশনাল বুক এজেন্সি (এনবিএ) থেকে প্রকাশিত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের লেখা বই ‘নাৎসি জার্মানির জন্ম ও মৃত্যু।’

পুজোর সময় রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বুক স্টল খোলে সিপিএম। এনবিএ-এর এক কর্তার কথায়, ওই কারণেই এই সময়টাকে বেছে নেওয়া হয়েছিল বই প্রকাশের জন্য। ছাপাখানা থেকে আসতেই প্রায় তিন দিনের মধ্যে শেষ হয়ে গেল প্রথম সংস্করণের ১২ হাজার কপি। এনবিএ-এর তরফে অনিরুদ্ধ চক্রবর্তী বলেন, “আমরা আশা করিনি এই রকম চাহিদা হবে।” বুধবার সন্ধে বেলা তিনি জানান, “এখন বইটি আউট অফ স্টক। দ্বিতীয় সংস্করণ ছাপা হচ্ছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায়।” তাঁর আশা, শুক্র-শনিবার থেকে এই বই আবার পাওয়া যাবে।

বই লেখার কাজে অনেকদিন আগেই হাত দিয়েছিলেন বুদ্ধবাবু। প্রথমদিকে সিপিএমের পরিকল্পনা ছিল, দলের ভিতরেই ফ্যাসিবাদ নিয়ে একটি দলিল গ্রহণ করার। এক সিপিএম নেতা বলেন, “বুদ্ধদার গোটা লেখা এত তথ্য সমৃদ্ধ এবং বিশ্লেষণাত্মক সেই কারণে পার্টি সিদ্ধান্ত নেয়, দলিল নয় বই হিসেবেই প্রকাশ করা হবে।”

বইয়ের বেশ কিছু অংশ লেখা বাকি থাকতেই দৃষ্টিশক্তি কমতে শুরু করে সিপিএমের প্রাক্তন পলিটব্যুরো সদস্যের। তারপর লেখার জন্য সাহায্য নেন রাজ্য দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক নেতার।

বুদ্ধ বাবুর সাহিত্যপ্রেম সর্বজনবিদিত। এর আগে গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজের দুটি বই বাংলায় অনুবাদ করেছিলেন বুদ্ধবাবু। চিলির বিশিষ্ট কবি পাবলো নেরুদার কবিতাও অনুবাদ করেছিলেন তিনি। সরকার থেকে বামফ্রন্ট চলে যাওয়ার পর বুদ্ধ বাবুর লেখা ‘ফিরে দেখা’, এবং ‘ফিরে দেখা-২’ বই দুটি ব্যাপক সাড়া ফেলেছিল বাম কর্মী-সমর্থকদের মনে। এ বারও স্বেচ্ছায় গৃহবন্দী বুদ্ধবাবুর বই বিকোচ্ছে হু-হু করে।

13