৬/১০/১৮,ওয়েবডেস্কঃ বয়স একত্রিশ পেরিয়েছে। পেশায় তথ্য প্রযুক্তি কর্মী। মাহিনা বেশ কম নয়। খামতি ছিলো একটাই। আর তা একজন ভালো জীবন সঙ্গিনী। আর এই চাওয়া নিয়েই নাম লিখালেন একটি ম্যাট্রিমনিয়াল সাইটে।ভেবে ছিলেন, খুঁজে পাবেন মনের মতোন কাউকে। কিন্তু ঘটলো অঘটন।জীবনসঙ্গী খুঁজতে গিয়ে খোয়া দিলেন জমানো লক্ষাধীক টাকা।

মুম্বাইএর পোয়াই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মুম্বাই এর বাসিন্দা ওই যুবক। যুবকের অভিযোগ, তিনি ওই সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন জীবনসঙ্গিনী খোঁজার জন্যে। তখনি রিকোয়েস্ট পাঠিয়েছিলেন প্রতারক ওই মহিলাকে। শুরু হয়েছিল চ্যাট। ওই যুবক আরো জানিয়েছিলেন, বারবার দেখা করার কথা বললেও কোনও না কোনও অজুহাতে এড়িয়ে যেতেন ওই মহিলা। এরপর , মহিলার জন্মদিনে দেখা করার প্রস্তাব দেন ঐ যুবক। প্রথমে রাজি হলেও পরে নির্দিষ্ট দিন সকালে ঐ মহিলা জানান, তার বাবা গুরুতর অসুস্থ হওয়ায় তিনি আসতে পারবেন না।কারন তার বাবাকে ভর্তি করতে হয়েছে হাসপাতালেও। সেই সঙ্গে ঐ মহিলা কিছু আর্থিক সাহায্যের আবেদন করেন। ঐ মহিলা আরো বলেন, তাঁর ভাই লন্ডন থেকে কয়েক দিনের মধ্যে ফিরবে। তারপরই ফেরত দিয়ে দেবেন সব টাকা।

যুবক পুলিশকে বলেন , তিনি অনলাইনে টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দিলে মহিলা নগদে টাকা চান। একজন ব্যাক্তিকে ড্রাইভার পরিচয় দিয়ে পাঠান ওই মহিলা। ওই ব্যক্তির হাতেই টাকা দেওয়ার কথা বলেন। মোট ২৩ লক্ষ ৪৪ হাজার টাকা দিয়েও দেন ওই যুবক। তারপর থেকেই মোবাইল ফোনে আর ওই মহিলার সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে যুবক বুঝতে পারেন তিনি প্রতারিত হয়েছেন। অভিযোগ করেন থানায়।

ম্যাট্রিমনিয়াল সাইটের সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখে পোয়াই পুলিশ চিহ্নিত করে ঐ মহিলাকে। জানা গেছে, ওই মহিলা ফেক ছবি দিয়ে অ্যাকাউন্ট চালাতেন। পুলিশের কাছে সে কথা স্বীকারো করেছেন ওই মহিলা। এবং আবেদন করেছেন, যাতে তাকে পুলিশ বিরক্ত না করে। তিনি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সব টাকা ফিরিয়ে দেবেন। যদিও, যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে মহিলার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

9