২৪/০৯/১৮,ওয়েবডেস্কঃআদিবাসী জনজাতির প্রতি সরকারি ঔদাসীন্য,দুর্নীতি সহ নয়দফা দাবী নিয়ে সপ্তাহের শুরুর দিন সকাল থেকেই রাজ্য জুড়ে আন্দোলনে নামলেন আদিবাসীরা।সারা রাজ্যের সাথে রায়গঞ্জের শিলিগুড়ি মোড় লাগোয়া ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ও ১০এ রাজ্য সড়কও অবরোধ করে দাবি আদায়ে আন্দোলন শুরু করে তাঁরা। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রায় ঘন্টা দুয়েক ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে থাকার জেরে ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয়েছে রায়গঞ্জ এবং সংলগ্ন এলাকায়। নাকাল হচ্ছেন নিত্য যাত্রীরা।

আন্দোলনকারীদের কাছ থেকে জানা গেলো, সরকারি বঞ্চনার প্রতিবাদে আদিবাসী সংগঠন ” ভারত জাকাত মাঝি পারগণা মহল”-এর উত্তর দিনাজপুর শাখা এদিন অনির্দিষ্টকালের জন্য শিলিগুড়ি মোড়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। স্তব্ধ হয়ে যায় যান চলাচল ব্যবস্থা। নাকাল নিত্যযাত্রী থেকে সাধারণ মানুষ। ইতিমধ্যেই অবরোধস্থলে পৌঁছেছে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।

অবরোধকারীদের দাবি সাঁওতালি ভাষার বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ, ইচ্ছুক সমস্ত আদিবাসী শিক্ষকদের সাঁওতালি মাধ্যমের স্কুলে নিয়ে আসা, সাঁওতালি পাঠ্যক্রমের সমস্ত বই সরবরাহ ও পরিকাঠামো গড়ে তোলা সহ সংবিধানে উল্লেখিত পঞ্চম তফশিল আইন চালু করার দাবী। এই সকলদাবী নিয়ে এদিন বেলা ১০ টা থেকে জেলা সদর রায়গঞ্জ শহরের শিলিগুড়ি মোড়ে জাতীয় সড়ক ও রাজ্যসড়ক অবরোধ করে তাঁরা।
সংগঠনের নেতা বাপি সোরেন বলেন, আদিবাসী শিক্ষক সমাজ ও সরকারি কর্মচারীরা তপসালি উপজাতিদের সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সংবিধানে উল্লেখ থাকলেও পঞ্চম তফশিল আইন আজও চালু হয়নি। দাবী পূরণের প্রশাসনিক আশ্বাস না মেলা পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য এই অবরোধ কর্মসূচী চলবে বলে তিনি জানান। বেলা সাড়ে বারোটা পর্যন্ত আন্দোলন চলছেই।

15