১৬/০৯/১৮,কুলিক রোববারঃ

রূপকথার মা ও ছেলে
এক অন্য বন্ধনের গল্প

কলমে – শ্রাবনী ভট্টাচার্য

আধুনিক রূপকথার গল্প শোনাতে পেন ধরেছি।রাজা ,রানী রাজকন্যা রাজপুত্রের কাহিনী নয়,মা ছেলের এক অপার্থিব,অদৃশ্য পূর্ব বন্ধনের কাহিনী।এর মধ্যে ইদিপাস কমপ্লেক্স এর ফ্যাক্টর খানিকটা কাজ করলেও নিখাদ ভালোবাসা আর পারস্পরিক নির্ভর তার পাল্লাটাই ভারী।এ কাহিনী ৯৮বছরের মা এডা এবং তার ৮০ বছরের ছেলে টম এর গল্প।ছেলের বয়স যখন ১৩ তখন ই স্বামীকে হারান এডা।কঠোর সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে বড় করেন তিন মেয়ে সহ ছেলে টম কে।মেয়েরা প্রতিষ্ঠিত হয়ে, বিয়ে করে যে যার সংসারে থিতু হয়।ব্যাতিক্রম চিত্রশিল্পী ছেলে টম।মা কে দেখবেন বলে বিয়েই করেন নি।বাবা মারা যাওয়ার পর নিজের সবটুকু উজাড় করে মা কে সাহচর্য, সেবা দিয়ে ভরিয়ে তুলেছেন।এখন বার্ধক্য জনিত কারণে ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়ায়,ইংল্যান্ডের লিভারপুলের হিউটন এলাকার মসভিউ নার্সিং হোমের আবাসিক ছেলে
ট ম।একবছর নিজের বসত বাড়িতে থাকলেও মা বিহীন ছেলের নীরব অশ্রুপাত,নার্স দের হাতে ছেলের খেতে না চাওয়ার বায়নায় মা এডা নিজেই ছুটে এসেছেন আবাসিক নার্সিং হোমে।এক কালের ট্রেনেড নার্স এডা ছেলের ওষুধ পত্র থেকে,diapar বদলানো,খাবারে নুনের মাত্রা চেখে দেখার কাজটিও নিজেই তদারক করছেন।মম ছাড়া যে ছেলে টম কিছুই বোঝে না।জীবনের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে ও মা ছেলের এই স্বর্গীয় ভালোবাসা এক অনস্বাদিত আনন্দে,আশাবাদে মন ভরিয়ে দেয়।এ যেন ধ্বংসস্তূপের মধ্যে দাঁড়িয়ে ফুল ফোটানোর গল্প ।

31