১০/০৯/১৮,ওয়েবডেস্কঃ৯ই সেপ্টেম্বর, রবিবার, রাজকুমার হত্যার বিচার চাই মঞ্চের তরফ থেকে জেলা কনভেনশনের আয়োজন করা হয়েছিল রায়গঞ্জ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েসনের সভাগৃহে। বিগত পঞ্চায়েত ভোটে ভোট চলাকালীন নিখোঁজ হন প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার রায়।। ফিরে আসেন বিকৃত, দলা পাকানো মৃতদেহ হয়ে।। পেছনে পরে থাকে ওনার জীবন্মৃত পরিবার।।
রায়গঞ্জের আপামর জনসাধারণ আছড়ে পড়েছিল জাতীয় সড়কে, ক্ষোভে, রাগে।
সেই থেকে আজ পর্যন্ত…রাজকুমার রায়ের তথা সমস্ত ভোটকর্মীদের ন্যায্য অধিকার রক্ষার্থে রাজকুমার হত্যার বিচার চাই মঞ্চ লড়ে চলেছে।। পাশে আছে জেলা তথা রাজ্যের শিক্ষক, সরকারী কর্মচারী সহ মানবিক জনসাধারণ।। মঞ্চের তরফ থেকে জেলার প্রায় প্রতিটি ব্লকের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে পাশে থাকার পাশে পাবার ঐকান্তিক ইচ্ছে জানিয়ে।

রবিবার দুপুর দুটো থেকে শুরু হয় জেলা কনভেনশনের কার্যক্রম।ছুটির দিনের অলস দুপুরকে উপেক্ষা করে বিবেকের টানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ। নিহত রাজকুমারবাবুর স্ত্রী তথা পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর প্রশ্নে আমরা দৃঢ় অঙ্গীকারবদ্ধ এই ছিল প্রত্যেকটি কন্ঠের প্রতিধ্বনি।। আমরা অর্থাৎ ভোটকর্মী তথা ভোটদাতারা আমাদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত দাবীদাওয়া আদায়ের ক্ষেত্রে অনঢ়। এই ছিল মঞ্চের অন্যতম আহ্বায়ক প্রিয়রঞ্জন পাল সহ উপস্থিত সভ্যবৃন্দের মিলিত অঙ্গীকার।

এক সফল নাগরিক কনভেনশনের সাক্ষী থাকলো রায়গঞ্জ শহর।

16