৬/০৯/১৮,ওয়েবডেস্ক: মাঝেরহাট উড়ালপুল কান্ডের পর জনমনে জন্ম নিচ্ছে হাজার প্রশ্ন।
গত ১৬ এপ্রিল ‘ই-টেন্ডার’ ডেকেছিল পূর্ত দফতরের বেহালা সাবডিভিশন। মাঝের হাট ব্রিজ, তারাতলা ফ্লাইওভার এবং ডায়মন্ডহারবার রোডের মোট ১ কিলোমিটারের কিছুটা বেশি রাস্তা মেরামতির জন্য।
এই টেন্ডারের বিষয়টি সামনে আসার পরই প্রশ্ন উঠছে, যখন পূর্ত দফতর টেন্ডার ডাকল মেরামতির, তার মানে তাদের কাছে এই বিষয়টি পরিষ্কার ছিল যে, ওই জায়গায় মেরামতির প্রয়োজন রয়েছে।
মেরামতির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল ১৬ লক্ষ ১৮ হাজার ১৮১ টাকা। সেই টেন্ডারে এও বলা ছিল যে, কাজ শুরু করতে হবে মে মাসে। কিন্তু টেন্ডারই সম্পূর্ণ হয়নি বলে কাজই শুরু করতে পারেনি পূর্ত দফতর।
নবান্ন এবং পূর্ত দফতর সূত্রের খবর, ওই রাস্তা মেরামতির জন্য যে টাকা বরাদ্দ হয়েছে তাতে কাজ কাজ করার জন্য কোনও সংস্থাই কোটেশন জমা দেয়নি।

বিশেষজ্ঞদের মতে ওই সময় কাজ শুরু হলে নিশ্চিতভাবেই খুঁটিনাটি বিষয়গুলি নজরে আসত এবং আগাম সতর্কতা নেওয়া যেত। কিন্তু তা হয়নি। আর সেই কারণেই প্রশ্ন উঠছে পূর্ত দফতরের কাজে। ছ’মাস আগে আবার রাস্তার অংশকে ফিট সার্টিফিকেটও দিয়ে দিয়েছিল পিডব্লিউডি। প্রশ্ন উঠছে সেই সার্টিফিকেট নিয়েও।
পোস্তার পর শিলিগুড়ি এবং তারপর মাঝেরহাট। দুঃস্বপ্ন তাড়া করে ফিরছে রাজ্যবাসীকে।

12