৩/০৯/১৮, ওয়েবডেস্ক: মহা সমারোহে চোপড়ায় পালিত হল জন্মাষ্টমীর কাদা খেলা। পূর্বকাল থেকে উত্তরবঙ্গ সহ গোটা চোপড়াতেও প্রতিবছর কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে জন্মাষ্টমীর ব্রতের পরনের দিন , অর্থাৎ পঞ্জিকা মতে নন্দ উৎসবের দিন কাদা খেলা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। প্রাচীন নিয়মানুসারে মানত করে কিংবা সার্বজনীন ভাবে বিশেষ করে রাজবংশী সম্প্রদায় ভক্ত মানুষ খুব নিষ্ঠার সঙ্গে এই কাদা খেলার আয়োজন করে।এই খেলার বৈশিষ্ট্য এঁটেল মাটি জল দিয়ে কাদা করে পরিষ্কার স্থানে এই খেলা হয়। এই খেলায় দলগত ভাবে বিভিন্ন কসরত ও শক্তি পরীক্ষার খেলা হয়। এছাড়াও থাকে বাঁশ খেলা। এই বাঁশ খেলার নিয়ম ২০-২৫ ফুট লম্বা কাঁচা বাঁশের মাথায় একটি নারিকেল বেঁধে দেওয়া হয়। তারপর ওই বাঁশ ভাল করে মিশ্রণ করে মোবিল দিয়ে লেপে দেওয়া হয়। ওই বাঁশে গামছা পেচিয়ে উঠে প্রতিযোগীরা নারিকেল নামাবে । সোমবার চোপড়ার ডাকুয়া গাছ, সুইগছ, নন্দকিশোর গছ , চুয়াগড়ি, ডাংরা ডাঙ্গী, সহ একাধিক গ্রামে কাদা খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

55