২৯/০৮/১৮,ওয়েবডেস্ক: উত্তর বঙ্গের জলপাইগুড়ির এক চা শ্রমিকের মেয়ে স্বপ্না বর্মন এশিয়াডে হেপ্টাথেলনে সোনা জিতে দেশের নাম উজ্জ্বল করলো। যদিও স্বপ্নার এই জয় কোনো স্বপ্ন থেকে কম নয়। দরিদ্র পরিবারের আর্থিক লড়াই, তার পর খেলতে গিয়ে দুটো পায়ের প্রত্যেকটিতে ছয়টি করে আঙ্গুল থাকায় জুতো নিয়েও সমস্যা সব কিছুকে পেছনে ফেলে স্বপ্নার স্বপ্ন পূরণ।

স্বপ্নার মা চা শ্রমিক বাবা ভ্যান চালক। সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে বাড়ি ফিরে বাবা মার একটাই প্রশ্ন ছিলো স্বপ্না আজ তোমার প্যাকটিস ঠিক মতো হয়েছে তো। স্বপ্নার মতো স্বপ্নার বাবা মারো দৃঢ় বিশ্বাস ছিলো সে জয়ী হবেই। আর আজ যখন টিভিতে দেখা গেলো স্বপ্না হেপ্টাথেলনে প্রথম হয়েছে, সোনা জিতেছে তখন স্বপ্নার বাবা মায়ের আনন্দের সীমা ছিলো না। তারা যেনো তৈরি ছিলো স্বপ্নার পদক গলায় ঝুলিয়ে দেশের পতাকা পিঠে বাধা ছবিটা দেখার জন্যেই।

11