২৯/০৮/১৮, ওয়েবডেস্কঃ মোমো আতঙ্ক ছড়ালো উত্তর দিনাজপুরেও। জেলার রায়গঞ্জ ও চোপড়া থেকে মোমো হানার খবর এসেছে গতকাল। রায়গঞ্জে যেখানে আন্তর্জাতিক ফোন নম্বর থেকে হোয়াটস অ্যাপ মেসেজ আসে, সেখানে চোপড়ার দাসপাড়াতে হোয়াটস অ্যাপ মেসেজ আসে ভারতীয় নম্বর থেকে। মঙ্গলবার বিকেলে রায়গঞ্জে অপরিচিত এক আন্তর্জাতিক নম্বর থেকে দুই যুবকের ফোনে একই সময়ে এসএমএস দুটি আসে বলে জানা গেছে। রায়গঞ্জ সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র বিশ্বজিৎ রায় ও রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র পিযুষ রায়ের অভিযোগ, মঙ্গলবার বিকেল ৪টা ১৬ মিনিট নাগাদ অপরিচিত বিদেশী এক নম্বর থেকে তাঁদের ফোনে মোমো নাম করে বেশ কয়েকটি এসএমএস এসেছে।

এরপর থেকেই ইন্টারনেট বন্ধ করে ওই নম্বরটিকে তাঁরা ব্লক করে রেখেছেন। এই ঘটনায় ওই দুই যুবকের পরিজনেরা জানার পর থেকেই আতঙ্কে রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন দুই পড়ুয়া। বিশ্বজিতের অভিযোগ, কন্টাক্ট লিস্ট থেকে একেরপর এক নম্বর ডিলিট হতেও শুরু করেছে এসএমএস আসার পর থেকে। পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার কথা জানিয়েছেন তাঁরা।

অন্যদিকে, ভারতীয় ফোন নম্বর থেকে হোয়াটস অ্যাপে চোপড়ার দাসপাড়াতে বহু যুবক যুবতির মোবাইল ফোনে এলো মোমোর এসএমএস। মঙ্গলবার রাত্রে অপরিচিত ওই নম্বর থেকে ফোনে একই সময়ে এসএমএস গুলি আসে বলে জানা গেছে। দাসপাড়ার মুন্না আলম ও ইসলামপুর কলেজের ছাত্রী মেহেবুবা রহমান এর অভিযোগ, মঙ্গলবার রাত্রি ১০ টা ৩২ মিনিট নাগাদ অপরিচিত ভারতীয় এক নম্বর থেকে তাঁদের ফোনে মোমো নাম করে বেশ কয়েকটি এসএমএস এসেছে । এরপর থেকেই ইন্টারনেট বন্ধ করে ওই নম্বরটিকে তাঁরা ব্লক করে রেখেছেন। এই ঘটনায় পরিজনেরা জানার পর থেকেই আতঙ্কে রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন মেহেবুবা রহমান । মুন্না আলম পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার কথা জানিয়েছেন ।

13